মার্কিন মুলুকে মাধুরীর বাজার করার প্রথম অভিজ্ঞতা

মার্কিন মুলুকে মাধুরীর বাজার করার প্রথম অভিজ্ঞতা

আজ বলিউডের ‘ধাক ধাক গার্ল’ মাধুরী দীক্ষিত ৫৪-এ পা রাখলেন। তাঁর সৌন্দর্য্যে মুগ্ধ হন না এমন দর্শক বিরল। আশির দশকের শেষভাগ থেকে নব্বই দশকের শেষ দিক পর্যন্ত বলিউড কাঁপানো এই সুন্দরীর ঝোলায় রয়েছে ‘ রাম লক্ষণ’,’তেজাব’,’হাম আপকে হ্যায় কৌন’,’কোয়লা’,’দিল তো পাগল হ্যায়’,’খলনায়ক’ ‘আজা নাচলে’, ‘দেবদাস’, ‘লাজ্জা’ -র মতো অজস্র সুপারহিট সিনেমা। খ্যাতি ও সাফল্যের শীর্ষে থাকা সত্ত্বেও শুধুই বলিউড ইন্ডাস্ট্রির বাইরে নয় সেই সময় বহু যুবকের হৃদয় ভেঙে বিয়ে করে রীতিমতো আমেরিকায় পাড়ি দিয়েছিলেন তিনি ১৯৯৯ সালে। মার্কিন নাগরিক ও প্রবাসী ভারতীয় ডা.শ্রীরাম নেনে-র সঙ্গে সাত পাকে বাঁধা পড়েছিলেন বলিউডের ‘চন্দ্রমুখী’।

ভারত থেকে উড়ে গিয়ে আমেরিকার পরিবেশে মানিয়ে নেওয়ার অভিজ্ঞতা কেমন ছিল তাঁর? ভারতের অন্যতম সেরা বলি-তারকা থেকে গৃহবধূর ভূমিকা পালন করার অভিজ্ঞতাই বা কেমন? এক সাক্ষাৎকারে এই সমস্ত প্রশ্নের জবাব দিলেন তিনি। মাধুরী তাঁর সাক্ষাৎকারে বললেন দেশে বাড়ির যে কোনও কাজ করার জন্য সাধারণত কাজের লোকের ওপরেই নির্ভরশীল থাকতেন তিনি। কিন্তু আমেরিকায় রান্না করা,বাজার করা,ঘর পরিষ্কার করা সবটুকুই নিজের হাতে সারতেন তিনি। এরপর মজার ছলে তিনি বলেন বিয়ের পর মার্কিন মুলুকে প্রথমবার ঘরের জন্য মুদিখানার জিনিষপত্র আনতে গিয়ে হৃদস্পন্দন রীতিমতো দ্রুত হয়ে গেছিল তাঁর। বলি-তারকা হওয়ার পর বহুবছরে সেটাই ছিল তাঁর নিজের হাতে বাজার করার প্রথম অভিজ্ঞতা। মাধুরীর কথায়,’ তা সত্ত্বেও ব্যাপারটা আমার দারুণ লেগেছিল। খুবই উপভোগ করেছিলাম। কিরকম যেন একটা স্বাধীনতার স্বাদ পেয়েছিলাম।

আরও পড়ুন-

আরও পড়ুন-

শেয়ার করুন